আমাদের দক্ষিণ -পূর্ব এশিয়ায় গ্যাস্ট্রিকের সমস্যাটা বেশি তা ছাড়া এদেশে ভেজাল খাদ্যের কারণে ছোটবড় বিভিন্ন বয়সের মানুষের গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা দেখা যায় । গ্যাস্ট্রিক একটি মারাত্নক রোগ সময় মত খাদ্য-খাবার নাখায়ার কারণে এটি হয় । তাই আমাদের সময় মত খাদ্য খাবার গ্রহন করতে হবে ।

অধিক তেল, চর্বি যুক্ত খাবার খাদ্য তালিকা থেকে বাদ দিন ।

গ্যাস্ট্রিক একটি মারাত্নক রোগ সময় মত খাদ্য-খাবার নাখায়ার কারণে এটি হয় । তাই আমাদের সময় মত খাদ্য খাবার গ্রহন করতে হবে ।

গ্যাস্ট্রিকের কারনঃ

  • অনেক সময় পেট খালি থকলে পেট ব্যাথা করে এবং গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা দেখা যায় ।
  • অনেক সময় তেল চর্বি জাতীয় খাবার বেশি খেলে পেটের ভিতর ভুর ভুর শব্দ হয় এবং গ্যাস্ট্রিকের হয় ।
  • ধূমপান করলে হজম শক্তি হ্রাস পাই এবং মুখ দিয়ে গন্ধ বের হয়
  • সময় মত খাবার না খেলে পেটে গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা দেখা যায় ।
  • গ্যাস্ট্রিকের আর একটা বড় কারন হল বেশি রাত করে খাবার খাওয়া ও সাথে সাথে ঘুমিয়ে পড়া ।
  •  আমরা অনেক সময় পাওয়ারফুল ব্যাথা নাশক ওষুধ খাই কিন্তু সাথে গ্যাসের ওষুধ না খাওয়ার কারণে ।
  • খালিপেটে চা অথবা এসিড জাতীয় ফল খেলে গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা দেখা দেয় ।
  • কম কম পানি পান করার কারণে ও গ্যাস্ট্রিক হয় ।

গ্যাস্ট্রিকের প্রতিকারঃ

  • আমরা অধিক তেল, চর্বি যুক্ত খাবার খাদ্য তালিকা থেকে বাদ দিব অথবা কম পরিমান খাব ।
  • বেশী বেশী পানি পান করব ও দীর্ঘ সময় পেট খালি রাখবো না অল্পকিছু খেলেও খেতে হবে ।
  • প্রতিদিন সঠিক সমায়ে ভারী খাবার খেতে হবে ।
  • ধূমপান থেকে বিরত থাকতে হবে এবং ব্যাথা নাশক ওষুধের সাথে গ্যাসের ওষুধ খেতে হবে ।
  • খালি পেটে এসিড জাতীয় ফল না খাওয়া ভালো ।
  • রাতে খাবারের পর একটু হাঁটাহাঁটি করা ও দূরত ঘুমিয়ে পড়া ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

five × 2 =